মোহ আর ভালোবাসা কখনই এক নয়! যেভাবে বুঝবেন…

ভাল লাগলেই ভালবাসা যায় না! মোহ না ভালবাসা, বুঝবেন যেভাবে

ইদানীং একজনকে বেশ ভাল লাগছে? তাঁর উপস্থিতি, কথাবার্তা, আচার-আচরণ সব কিছুই যেন ভীষণ ইমপ্রেসিভ মনে হচ্ছে? সামান্য কয়েক দিনের আলাপ, তাও তাঁর উপর ভীষন রকমের ইমপ্রেসড হয়ে পড়েছেন? মনের কথা জানানোর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন? প্রোপোজ করার আগে নিশ্চিত হয়ে নিন, এটা আপনার মোহ না ভালোবাসা। যেটাকে আপনি ভালবাসা বলে ভাবছেন সেটা আসলে মোহ বা সাময়িক আবেগও হতে পারে, যেটা কিছুদিন পর চলে যাবে।  

তাৎক্ষনিকভাবে কাউকে ভাল লাগাটাকেই অনেকে প্রেমে পড়েছেন ভেবে ভুল করেন। যার মোহের বশে আপনি আচ্ছন্ন, তার সাথে যে আপনার প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হবেই, এমন কোনো কারণ নেই। খেয়াল করে দেখবেন আপনার এই সাময়িক আবেগের পিছনে নির্দিষ্ট কিছু কারণ আছে। আর যদি এটা সত্যিকারের প্রেম হয় তাহলে ভালো লাগার কারণ খুঁজে বার না করে শুধু তার সাথে থেকেই খুশী হবেন, তাকে আগলে রাখার চেষ্টা করবেন, তাকে উৎসাহ দেবেন, তার খুশীতে খুশী হবেন। সেই মানুষটির জন্য অপেক্ষা করবেন, তার প্রতি অগাধ বিশ্বাস আর ভালবাসা অনুভব করবেন আর সর্বস্ব দিয়ে চাইবেন- তার শুধুই ভাল হোক। কিন্তু মোহের ক্ষেত্রে এমন কোনও সম্ভাবনা নেই।

তাহলে মোহ আর ভালোবাসার পার্থক্য করবেন কীভাবে?

ভালবাসা আর মোহের মধ্যে বিস্তর ফারাক রয়েছে। মোহ অনেকটা হানিমুন বা কোয়ালিটি টাইমের মত যা লং ড্রাইভ আর ডিনারেই সীমাবদ্ধ। এদিকে কাউকে ভালবাসলে তার প্রতি আকর্ষণের থেকে বেশী শ্রদ্ধা, বিশ্বাস, ভরসা জন্মাবে। ভালোবাসা দৃঢ়  হলে, প্রেমের সম্পর্কে যেমন থাকে কারণ ছাড়া ভাল লাগা, আদর ও উষ্ণতা, তেমনই থাকে একে অপরকে ভালো রাখার, কখনো ছেড়ে না যাবার প্রতিশ্রুতি। আর এইসব সামান্য কয়েকদিনে জন্মায় না, ভালবাসার অনুভূতি আসে ধীরে ধীরে।

মোহ’র কারণে আপনি তাঁর প্রতি তীব্র টান অনুভব করতে পারেন। মোহ আপনাকে অস্থির, আধিপত্যপ্রবণ, এবং আসক্ত করে তোলে। কারণ মোহের সাথে শারীরিক বা বাহ্যিক সৌন্দর্যের আকর্ষণ থাকে, যা আপনাকে আবেগতাড়িত করে তোলে বার বার। প্রেমের অনুভূতি আসে হৃদয়ের গভীর থেকে, তাই ভালবাসা মনকে শান্ত ও স্নিগ্ধ করে, ভরসা যোগায়, বিশ্বাস করতে শেখায়, বন্ধুত্বপূর্ণ মনোভাব গড়ে তোলে। আসলে ভালবাসার যেমন কোনো কারন থাকে, থাকে না কোন উদ্দেশ্যও।

কারোর প্রতি আপনার এই যে আকর্ষণ তা কিছুদিনের মধ্যেই চলে যায়। অপরদিকে ভালবাসার অনুভূতি থেকে যায় চিরন্তন। যতদিন যায় আপনার মনের মানুষের প্রতি বিশ্বাস, ভরসা আর ভালবাসা ততই বাড়ে। তার ভালবাসা আপনাকে পরিপূর্ণ করে তোলে।

কেন মোহ এবং ভালোবাসাকে এক করা উচিত নয়

প্রাথমিকভাবে আমরা কোনো ব্যক্তির চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের মোহে পড়ি, কেউ বা তার রূপ বা গুনের মোহে পড়ে, এছাড়াও কারোর সাজগোজ, স্টাইল, গলার স্বর, কথাবার্তা আমাদের আকর্ষণ করতেই পারে। কিন্তু সেখানে ভালবাসা বা প্রতিশ্রুতি থাকে না। অনেক সময় মানুষটিকে সম্পূর্ণরূপে জানার পর তাকে আর মন থেকে ভালবাসতেই পারি না। তাই মোহ না প্রেম –এ বিষয়ে নিশ্চিত হয়ে নেওয়া প্রয়োজন সম্পর্ক শুরু করার আগেই।

কোনটা মোহ আর কোনটা প্রেম তা যদি আমরা আলাদা করতে না পারি তাহলে আসন্ন বিপদ। মোহে অন্ধ হয়ে সম্পর্ক শুরু করলে, সেই সম্পর্কে অনেক রকমের অশান্তি, ভুল বোঝাবুঝির সূত্রপাত হয়, সব থেকে বড় কথা সেই সম্পর্ক বেশীদিন টেকে না। মোহের ফাঁদে পা দিয়ে অকারণে আমাদের আত্মবিশ্বাস কম হতে থাকে, সুখের হদিশ পাওয়াও মুশকিল হয়ে যায় আর সম্পর্ক ভাঙার যন্ত্রণা নিয়ে অন্যকে দোষারোপ করার প্রবৃত্তি জন্মায়।

Related posts